অনির্দিষ্টকালের জন্য নিষিদ্ধ হলেন শাকিব খান!

অনির্দিষ্টকালের জন্য নিষিদ্ধ করা হলো চিত্রনায়ক শাকিব খানকে। আজ শনিবার বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতিতে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সকল কুশলীদের সংগঠনের যৌথ এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে পরিচালক সমিতির এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, আজ শনিবার বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতিতে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সকল কুশলীদের সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের যৌথ এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সর্ব সম্মতিতে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয় যে, যেহেতু চিত্রনায়ক শাকিব খান দেশের সমগ্র চলচ্চিত্র পরিচালকদের অসম্মান ও হেয় প্রতিপন্ন করে জাতীয় দৈনিকসহ মিডিয়াতে বক্তব্য দিয়েছেন। বর্তমানেও একই ধরণের বক্তব্য দিয়ে যাচ্ছেন। চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সকল কুশলীরা মনে করেন, তিনি দেশের চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সকল কুশলীদের তুচ্ছজ্ঞান করেছেন। কারণ পরিচালকই হচ্ছেন ‘ক্যাপ্টেন অব দ্য শীপ’। তাদের অপমান করা মানে সকল কুশলীদের অপমান করা। তাই আজ থেকে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সকল সংগঠনের সদস্যরা অনির্দিষ্টকালের জন্য শাকিব্ খানের সাথে কোনো সিনেমার শুটিং ও ডাবিংয়ের কাজে অংশগ্রহণ করবেন না।

বাংলাদেশ পরিচালক সমিতির প্যাডে পাঠানো ওই বিজ্ঞপ্তিতে পরিচালক সমিতির সভাপতি, মহাসচিবের স্বাক্ষর রয়েছে। এ ছাড়া চলচ্চিত্র গ্রাহক সংস্থা, ফিল্ম এডিটরস গিল্ড, চলচ্চিত্র ফাইট ডিক্টেরস এসোসিয়েশন, চলচ্চিত্র নৃত্য পরিচালক সমিতি, চলচ্চিত্র স্থিরচিত্রগ্রাহক সমিতি, চলচ্চিত্র উৎপাদন ব্যবস্থাপক সমিতি, চলচ্চিত্র উৎপাদন সকহারী ব্যবস্থাপক সমিতি, চলচ্চিত্র অঙ্গসজ্জা সমিতি, চলচ্চিত্র রূপসজ্জাকর সমিতি, চলচ্চিত্র লেখক সমিতির সভাপতির স্বাক্ষর রয়েছে।

সম্প্রতি সবচেয়ে আলোচিত ঘটনা শাকিব-অপুর বিয়ে। এ বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে গিয়ে এ দেশের পরিচালক, প্রযোজক ও শিল্পীদের বেকার বলেন শাকিব খান। এর আগে বিভিন্ন গণমাধ্যমে তিনি বলে আসছিলেন, বাংলাদেশে কোনো ভালো টেকনিশিয়ান নেই।

এমন মন্তব্য করায় পরিচালকদের হেয় করা হয়েছে উল্লেখ করে কয়েকদিন আগে পরিচালক সমিতি থেকে একটি উকিল নোটিশ পাঠায় শাকিব খানের কাছে। এ বিষয়টির সঠিক সুরাহা না হওয়া পর্যন্ত সকল পরিচালককে শাকিব খানকে নিয়ে সিনেমা নির্মাণ না করার আহ্বান জানান। এ নিয়ে কয়েকদিন ধরেই নির্মাতারা নানাভাবে তাদের মনোভাব ব্যক্ত করেন।

Comments

comments

Scroll To Top