অবশেষে শুরু হচ্ছে ‘এভাটার’ এর সিকুয়েলের শুটিং!

২০০৯ সালে সিনেমার দুনিয়ায় হুলুস্থুল ফেলে দিয়েছিল জেমস ক্যামেরনের এভাটার। স্পেশাল এফেক্টের যে বাউন্ডারি ছিল সেটাকে এই মুভিটি ছড়িয়ে দেয় আরো দূর পর্যন্ত। বক্স অফিসে ২.৮ বিলিয়ন ডলার আয় করে সিনেমাটি। তখনই ক্যামেরন বলেছিলেন, এভাটারের আরো দুটো মুভি আসবে। সেটা তিন হয়েছে, এখন গিয়ে ঠেকেছে চারে। মুভির শুটিং কবে শুরু হবে, মুক্তি পাবে কবে, এসবের ডেট চেঞ্জ হয়েছে অনেকবার।

অবশেষে সব অপেক্ষা শেষ। জানা গেছে চলতি মাসের ২৫ তারিখেই শুরু হচ্ছে এভাটারের সিকুয়েলের শুটিং। বেশ কিছুদিন আগে থেকেই এভাটারের ভিজুয়াল এফেক্টের দায়িত্বে থাকা ওয়েটা ডিজিটাল তাদের কাজ শুরু করে দিয়েছে। এক্টররা অলরেডি সেটে পৌঁছে গেছেন, অফিশিয়ালি শুটিং শুরুর আগে মুভিতে যেসব টেকনোলোজি ব্যবহার করা হবে সেগুলো নিয়ে প্র্যাকটিস শুরু করে দিয়েছেন।

এভাটারের কেবল এই কিস্তির নয়, তৃতীয়, চতুর্থ এবং পঞ্চম কিস্তির চিত্রনাট্য লেখা শেষ। এই সিনেমাটিক দক্ষযজ্ঞ যে কতটা বড় হবে তা একটা তথ্য থেকেই বোঝা যায়। “এভাটারের চারটে কিস্তির শুটিং হবে পরপর”। অর্থাৎ এভাটার ২ যখন মুক্তি পাবে অর্থাৎ ১৮ ডিসেম্বর ২০২০, তার আগেই কমপক্ষে দুটো মুভির শুটিং শেষ হয়ে যাবে। ক্যামেরন এই কর্মযজ্ঞ কতোটা সফলভাবে করতে পারবেন সেটা চিন্তা হয়, তবে ক্যামেরন তো, এই ভিশনারী ও পারফেকশনিস্ট মানুষটি সবকিছু ঠিকভাবে করে ফেলবেন সেই আশা রাখাই যায়।

এভাটারের সিক্যুয়েল গুলোর রিলিজ ডেট হলো –
এভাটার ২ – ডিসেম্বর ১৮, ২০২০
এভাটার ৩ – ডিসেম্বর ১৭, ২০২১
এভাটার ৪ – ডিসেম্বর ২০, ২০২৪
এভাটার ৫ – ডিসেম্বর ১৯, ২০২৫

চিত্রনাট্যকার হিসেবে জেমস ক্যামেরন তো থাকবেন চারটাতেই, আরো থাকবেন জশ ফ্রিডম্যান (২), রিক জাফা এবং আমান্ডা সিলভার (৩), শেন সেলারনো (৪)। প্রথম মুভির স্যাম ওরডিংটন, জো সালডানহা, জোয়েল ডেভিড মুর তো থাকবেনই, এমনকি প্রথম মুভিতে মারা যাওয়া মাইলস কুয়েরিচ, লাইল ওয়েনফ্লিট ক্যারেক্টারগুলোও ফেরত আসবে, যেগুলোর চরিত্রে রুপায়নে আবারো থাকবেন স্টিফেন ল্যাংগ এবং ম্যাট জেরাল্ড। কুয়েরিচই হবে সিক্যুয়েল গুলির ভিলেন।

এছাড়াও সিগোরনি উয়েভারও ফিরে আসবেন এই সিকুয়েলে, প্রথমে বলা হচ্ছিল ওনার গ্রেইস ক্যারেক্টারটি আবার জীবন ফিরে পাবে, তবে সর্বশেষ খবর অনুযায়ী উনি নতুন আরেকটি রোল করবেন। এছাড়া নতুন দুটি এলিয়েন চরিত্রে থাকবেন ক্লিফ কারটিস এবং উনা চ্যাপলিন। কোনো মুভির কাহিনী সংক্ষেপ এখনো বলা হয় নি। তবে একটা কাহিনী চার পর্বে না দেখিয়ে, একই পরিবেশ ও টাইমলাইনে ঘটা চারটা স্ট্যান্ডএলোন কাহিনী দেখানো হবে চারটি মুভিতে, প্রতিটি মুভির কাহিনী সেই মুভিতেই শুরু, সেখানেই শেষ।

এছাড়া জানানো হয়েছে যে এভাটার ২ এ প্যান্ডোরার সমুদ্র থাকবে মূল পরিবেশ হিসেবে, এছাড়া রেইনফরেস্টটির আরো অংশ দেখানো হবে। নতুন প্রাণী, উদ্ভিদ, পরিবেশ যা দেখানো হবে সবকিছুর মডেলিং সম্পন্ন। ক্যামেরন এই সিক্যুয়েল গুলোর পিছনে সময় দিতে কোনো কার্পণ্য করেন নি। আমরা যুগান্তকারী কিছু মুভি পেতে যাচ্ছি এটা মনে করাই যায়। এখন কেবল অপেক্ষা কবে মুভিগুলো থিয়েটারে আসে।

Comments

comments

Scroll To Top