আমি স্বজনপ্রীতির মানে জানি নাঃ সোনাক্ষি সিনহা

সোনাক্ষি সিনহাকে বলিউডে মার্জিত অভিনেত্রী বলা হয়। সাবলিল অভিনয় দিয়ে তিনি পেয়েছেন অসাধারণ জনপ্রিয়তা। তাঁর বেশকিছু ছবি পেয়েছে দর্শক জনপ্রিয়তা। চলতি সপ্তাহে মুক্তি পেয়েছে সোনাক্ষি সিনহা অভিনীত ছবি ‘নূর’। এতে তিনি একজন সাংবাদিক-লেখিকার চরিত্রে অভিনয় করেছেন। সম্প্রতি তিনি ফিল্মফেয়ারের সঙ্গে আলাপকালে মুক্তি পাওয়া ছবি এবং নিজের সম্পর্কে খোলামেলা কথা বলেছেন। ফিল্মফেয়ারের সৌজন্যে সাক্ষাৎকারটি ফিল্মীমাইক পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো-

‘নূর’-এর প্রতিক্রিয়া কেমন?

সোনাক্ষি : ইতিবাচক। বন্ধু, পরিবার এবং অনলাইন থেকে ভালো প্রতিক্রিয়া পাচ্ছি। খুব কম ছবি আছে যেখান থেকে আপনি পুরোটাই ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া পাবেন। এটা সাধারণত মিশ্র কিন্তু এখানে সব ইতিবাচক।

দর্শক ছবির কোন জিনিসগুলো পছন্দ করেছে?

সোনাক্ষি : আমি মনে করি নূরের চরিত্রটি এতই সুবিন্যস্ত যে, এটি দেখে এমন কেউ মনে করে ‘ওহ, আমি এই ব্যক্তি হতে পারি এবং আমিও এটি করি।’ আপনি খুব সহজে এটির সঙ্গে মিশে যেতে পারবেন। এটি খুব বাস্তব একটি চরিত্র।

‘নূর’-এর সঙ্গে আপনি কতটা সংযুক্ত হতে পেরেছেন? আপনি কি তাঁর মতো পার্টি করেন? ওর মতো পাগলাটে বন্ধু আছে আপনার?

সোনাক্ষি : আমি নূরের মতো পার্টি করি না। আমি শুধু নূরের জন্য পার্টি করেছি (হাসি)। আমি চরিত্রের সঙ্গে খুব সহজে মিশে গেছি। অনেক কিছু আছে যা মেয়েদের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত করতে সক্ষম হবে, কারণ সে আজকের একটি মেয়ে। সে একজন আধুনিক মেয়ে। সে জীবনে সবকিছু চায়। ভালো পেশা চায়। সে নিখুঁত শরীর এবং পরিবার, বন্ধুদের সঙ্গে সমতা চায়। আজকের মেয়েরা ঠিক এমন। তারা সব চায়। তারা অল্প কিছুতে সন্তুষ্ট নয়। সে এসব অর্জন করার জন্য কাজ করে চলছে। আপনি আপনার জীবনে অস্পষ্টতা রাখতে পারবেন না। আপনি সুখী হবেন না।

আপনার সুখের রহস্য কী? আমরা আপনাকে সবসময় হাসি-খুশি দেখি!

সোনাক্ষি : আমার জন্য আপনার মতামত গ্রহণ করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আপনি যা করছেন তাতে খুশি থাকতে হবে। এমনকি আমি যখন কাজ করি তখন আমার কাজের মতো মনে হয় না। এটি একটি শখের মতো মনে হয়। আমি এটা করছি কারণ আমি এটি করতে ভালোবাসি এবং যখন আপনি জীবনে যে ভারসাম্য খোঁজেন, আমি মনে করি যে সেটি আপনাকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপনাকে খুশি করে তোলে। আমার খুব ভালো বন্ধু এবং পরিবার আছে। তারা খুব সহায়ক। আপনাকে যখন তারা সমর্থন দেবে তখন সবসময় হাসিখুশি থাকতে হবে।

আপনি কি কখনো আপনার অসম্পূর্ণতাকে চিহ্নিত করতে পেরেছেন?

সোনাক্ষি সিনহা : কোনো মেয়ে নেই? আমাকে একটি মেয়ে দেখান যিনি নিজেকে সমালোচকের চোখে দেখেননি! আমি সবসময় নিজেকে সমালোচকের চোখে দেখি। মানুষ আমাকে কেমন মনে করে সেটা নিয়ে আমি অধিক চিন্তা করি।

অতিরিক্ত চিন্তা তো ভালো কিছু নয়!

সোনাক্ষি : হ্যাঁ, তা ঠিক। তবে অধিক চিন্তার কারণে অনেক সমস্যা উঠে যায়। আমি এটি পছন্দ করি। আমি কি করব?

আপনার সেরা বন্ধু কারা?

সোনাক্ষি : বাস্তব জীবনে স্কুল ও কলেজে আমার সেরা বন্ধু রয়েছে। তারা হলো বিধি ও সাক্ষী।

আপনি ‘নূর’এর জন্য কী কী প্রস্তুতি নিয়েছেন?

সোনাক্ষি : এ বিষয়ে আমার পরিচালক সুনিল সিপ্পির সঙ্গে কথা বলেছিলাম। আমি এমন একজন অভিনেত্রী যে, আমাকে খুব একটা প্রস্তুতি নিতে হয়নি। আমি পরিচালকের সঙ্গে কথা বলে বোঝার চেষ্টা করেছি তিনি কীভাবে চিত্রায়িত করতে চান! আমি বুঝতে পেরেছি এবং অভিনয় করেছি। তারপর আমি নিজের মতো করে চরিত্রের সঙ্গে খেলেছি।

এখন বলিউডে স্বজনপ্রীতির প্রবণতা চলছে…!

সোনাক্ষি : আমি স্বজনপ্রীতির মানে জানি না। নতুন যে শব্দটি তারা বলছে সেটি বলতে দেন।

আপনি তো ছবিতে সাংবাদিক চরিত্রে অভিনয় করেছেন। এখন যদি সুযোগ পান তাহলে কার সাক্ষাৎকার নিতে চান?

সোনাক্ষি : হা হা হা! আমি এই ছবির পরিচালক সুনীল সিপ্পির সাক্ষাৎকার নিতে চাইব। তিনি খুব আকর্ষণীয় ব্যক্তি এবং আমাদের পুরো যাত্রা খুবই অসাধারণ ছিল।

Comments

comments

Scroll To Top