আসছে সায়মন-মাহির দুই ছবিঃ কোন পরিচালকের পাল্লা ভারী?

চার বছর আগে প্রথম এবং শেষবারের মতো পর্দায় আসেন সাইমন-মাহি। শুধু এক ছবির সুবাদে ‘জুটি’ বলা না গেলেও ‘পোড়া মনে’র দারুণ সাফল্যের ফলে এখনো সাইমন-মাহি জুটির চাহিদা। প্রডাকশন হাউজের সাথে দ্বন্ধের জেরে সাইমন এখনও ‘পোড়া মনে’র ঘরছাড়া নায়ক। এখন মাহিও আর ওই ঘরে বন্দি নেই। পেছনে চার বছর চলে গেলেও নতুন করে শুরু করতে দ্বিধা নেই। তাই তো ফের জুটিবদ্ধ সাইমন-মাহি। একটি নয়, দুটি ছবি নিয়ে ফিরছেন এই দর্শকপ্রিয় জুটি।

প্রথমে দুজনকে চুক্তিবদ্ধ করেন শামীমুল ইসলাম শামীম। ‘গোলাপতলীর কাজল’ শুরু হওয়ার পরপরই মোস্তাফিজুর রহমান মানিক আসেন দৃশ্যপটে। দুজনকে নিয়ে শুরু করেন ‘জান্নাত’। দুটি ছবিরই প্রথম লটের শুটিং হলো আউটডোরে। কাছাকাছি সময়ে শুটিং হওয়ায় দুটি ছবিই এখন রয়েছে সমান আলোচনায়। এবার আসুন দেখি দুটি ছবির মধ্যে কোন ছবির পাল্লা ভারি।

শামীমুল ইসলাম শামীম নতুন পরিচালক। প্রথম ছবি ‘আমার প্রেম আমার প্রিয়া’ অাড়াই বছর আগে শুরু করলেও শেষ করেছেন সম্প্রতি। পোষ্ট-প্রডাকশনের শেষ ধাপে আছেন তিনি। তার দ্বিতীয় ছবি ‘গোলাপতলীর কাজল’। গ্রামীণ পটভূমিতে ছবির গল্প লিখেছেন শামীম নিজেই। সিলেটের আকর্ষণীয় লোকেশনে কাজ করেছেন। ছবিতে নবাগত আসিফ নূরও আছেন। এক প্রতিবন্ধী যুবক আর তার সেবায় নিয়োজিত তরুণীর গল্প ‘গোলাপতলীর কাজল’।

অন্যদিকে মোস্তাফিজুর রহমান মানিক সহকারী ছিলেন ‘পোড়া মন’র স্রষ্টা জাকির হোসেন রাজুর। প্রথম ছবি ‘দুই নয়নের আলো’র মাধ্যমে প্রশংসিত মানিক সাইমনকে নিয়ে আগেও কাজ করেছেন। মাহি তার ছবিতে এলেন প্রথমবার। শাবনূরকে নিয়ে কাজ করতে অভ্যস্ত মানিক মাহির উপর বাজি ধরেছেন। ইউনিট ‘জান্নাতে’র ব্যাপারে ভীষণ আশাবাদী। তাদের ধারণা মানিক তার হৃত সম্মান ফিরে আনবেন ‘জান্নাতে’ দিয়ে। এ ছবির গল্প লিখেছেন তরুণ স্ক্রিপ্ট রাইটার আসাদ জামান।

দুই ছবিতেই এক জুটি সাইমন-মাহি। তবে মানিক আর শামীমের মধ্যে ফারাক মূলত অভিজ্ঞতার। একজন আপাদমস্তক সিনেমার লোক। আরেকজন এসেছেন টিভি মিডিয়া থেকে। ফলে দুই নির্মাতার চলচ্চিত্রে ভাষাগত পার্থক্যও দৃষ্টিগোচর হতে পারে। এবার লক্ষ্য করার পালা, কার ছবিকে দর্শক গ্রহণ করে। অবশ্য কেউ কেউ বলছেন, এতো আগেভাগে মন্তব্য করা ঠিক হবে না। তাই বলে তো লোকের মুখ থেমে নেই!

Comments

comments

Scroll To Top