ঈদের ছবির প্রস্তুতি: হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের প্রতীক্ষা

eid-movie

ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ছবি মুক্তি দেওয়ার জন্য চলছে তোড়জোড়। এফডিসি ও কাকরাইল পাড়ায় আকাশের মতোই রংবদল ঘটছে। কখনও মেঘ, কখনও রোদ্দুর! ছবি মুক্তি নিয়ে তৈরি হচ্ছে নানারকম শঙ্কা।

‘সম্রাট’, ‘শিকারী’, ‘মেন্টাল’, ‘বাদশা’- তিন অক্ষরের এই চার ছবি আছে মুক্তির মিছিলে। এর মধ্যে ‘সম্রাট’, ‘শিকারী’ ও ‘মেন্টাল’ ছবির নায়ক শাকিব। কিন্তু শেষ পর্যন্ত অন্তত দুটি ছবি পিছিয়ে যেতে পারে।

যৌথ প্রযোজনার ছবি ‘শিকারী’র মুক্তি উপলক্ষে ঢাকায় এসেছেন কলকাতার নায়িকা শ্রাবন্তী। তাকে নিয়ে প্রচারে নেমেছেন নায়ক শাকিব খান। এরই অংশ হিসেবে বুধবার (২২ জুন) সন্ধ্যায় সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন তারা।

কলকাতার এসকে মুভিজের সঙ্গে যৌথভাবে এটি প্রযোজনা করেছে জাজ মাল্টিমিডিয়া। ঈদে ছবিটি শেষ পর্যন্ত প্রেক্ষাগৃহে যাবে কি-না এ নিয়ে সংকট তৈরি হয়েছে।

গুঞ্জন রয়েছে, একই প্রতিষ্ঠানের অন্য ছবি জিৎ ও নুসরাত ফারিয়ার ‘বাদশা দ্য ডন’ মুক্তি দেওয়া হলে পিছিয়ে যেতে পারে ‘শিকারী’র মুক্তি। কলকাতার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি এগিয়ে রাখছে জিতের ছবিকে। ‘শিকারী’ এক মাস পর মুক্তি দেওয়ার কথাও নাকি ভাবছেন তারা।

আরেকটি সরল হিসাব হলো- জাজ এক উৎসবে বড় বাজেটের দুটি ছবি মুক্তি দেবে- এটা প্রপাগান্ডা ছাড়া আর কিছুই নয়। কারণ এক উৎসবে দুটি ছবি থেকে লগ্নি করা অর্থ তুলে আনা বেশ কষ্টসাধ্য।

ঈদে মুক্তির মিছিলে থাকা ছবিগুলোর হলবুকিং চলছে। এর অর্থ এই নয় যে, ছবিগুলো ঈদেই মুক্তি পাচ্ছে। ‘সম্রাট’ ছবির ব্যাপারে হল মালিকদের আগ্রহ বেশ। হলবুকিংয়েও এগিয়ে আছে এটি। ছবিটির প্রতি শাকিবেরও বিশেষ দৃষ্টি আছে। নির্মাতা মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজের দাবি, ঈদেই আসবে ‘সম্রাট’।

‘শিকারী’র কথা আগেই বলা হয়েছে। বাকি থাকলো ‘মেন্টাল’ প্রসঙ্গ। এর প্রযোজক পারভেজ চৌধুরী জানান, নাম নিয়ে জটিলতা কাটিয়ে উঠছেন তারা।রেকর্ডসংখ্যক প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দেওয়া হবে ছবিটি।

চলচ্চিত্রপাড়ার অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন, ‘মেন্টাল’ ঈদে মুক্তি পাক তা কী সত্যি চাইছেন শাকিব? এর যুক্তি হিসেবে পাওয়া গেলো দুটি বিষয়। প্রথমত তার চাওয়া- ঈদে তার দুটি ছবি মুক্তি পাক। দ্বিতীয়ত, কিং খান ‘শিকারী’ নিয়ে একটু বেশিই উচ্ছ্বসিত। এরপরই তার পছন্দ ‘সম্রাট’। কাজেই হিসেবটা একটু জটিলই…।

হল মালিক সমিতির মতে, এখন যা শোনা যাচ্ছে সবই আওয়াজ। বুকিং যে কোনো ছবির জন্যই করা যেতে পারে। এর অর্থ এই নয় যে, হল মালিক ছবিটি ঈদের দিনই চালাবেন। অনেক হল মালিক একাধিক ছবি বুকিং দিয়ে রেখেছেন। ঈদের সপ্তাহ খানেক আগে বিষয়টি চূড়ান্ত হবে।

দেশে এই মুহূর্তে চালু রয়েছে ২৫০টির মতো প্রেক্ষাগৃহ। ঈদকে কেন্দ্র করে চালু হতে পারে আরও ৫০টি। এ ছাড়া বন্ধ থাকা অর্ধশত হল ইজারা নিচ্ছে জাজ মাল্টিমিডিয়া। এ হিসাবে ৩৫০টি হল ঈদে চালু থাকবে। মাঠ প্রস্তুত, দর্শক প্রস্তুত, এবার হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের প্রতীক্ষা।

Comments

comments

Leave a Reply

Scroll To Top