‘ঢাকা অ্যাটাক’ চমকঃ স্ত্রী প্রধানমন্ত্রী, স্বামী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী!

dhaka attack

প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দুজনে একই পরিবারের সদস্য। স্ত্রী হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী আর স্বামী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। ‘ঢাকা অ্যাটাক’ ছবিতে গল্পের গুরুত্বের কারণে এই দুটি চরিত্রের প্রয়োজন ছিল বলে জানান পরিচালক দীপঙ্কর দীপন। আর তাতে অভিনয় করেছেন তারকা শিল্পী দম্পতি লায়লা হাসান ও সৈয়দ হাসান ইমাম।

ঢাকার রাজারবাগ পুলিশ লাইন মাঠে সম্প্রতি ‘ঢাকা অ্যাটাক’ ছবির দৃশ্যধারণে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী চরিত্রে লায়লা হাসান ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী চরিত্রে সৈয়দ হাসান ইমাম।

প্রধানমন্ত্রীর চরিত্রে অভিনয় করতে পেরে গৌরবান্বিত লায়লা হাসান। এটাকে অভিনয়জীবনের বাড়তি পাওনা বলেও মনে করছেন তিনি। বললেন, ‘বাস্তবে তো প্রধানমন্ত্রী হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই, আমি রাজনীতিও করি না, কিছুক্ষণের জন্য প্রধানমন্ত্রী হয়ে খুবই পুলকিত। শুটিংয়ের সময় মনে হলো, কিছুক্ষণের জন্য তো প্রধানমন্ত্রী হলাম, এটা অন্য রকম অনুভূতি।’

লায়লা হাসান জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তাঁর বেশ কয়েকবারই দেখা হওয়ার সুযোগ হয়েছে। সে বিষয়টি মনে করে তিনি বললেন, ‘আমাদের প্রধানমন্ত্রী অসম্ভব ব্যক্তিত্বসম্পন্ন ও অনেক মজার একজন মানুষ। আমার সঙ্গে যে খুব সখ্য আছে, তা কিন্তু না, তবে দেখা হলেই তিনি জড়িয়ে ধরেন। একসঙ্গে কোনো অনুষ্ঠানে যেতে না পারলেও হাসান সাহেবের কাছে আমার খোঁজখবর নেন। বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময় আমি ছাত্র ইউনিয়ন করতাম, আর তিনি ছাত্রলীগ— তারপরও তাঁর সঙ্গে আমার খুব বন্ধুসুলভ সম্পর্ক ছিল। সেই আমি এক ঘণ্টার প্রধানমন্ত্রী হয়ে খুব গৌরবান্বিত বোধ করেছি। আপ্লুত ও পুলকিত। আজ অভিনয় করি বলেই প্রধানমন্ত্রী চরিত্রেও কাজ করার সুযোগ পেলাম। এটা অভিনয়জীবনের বাড়তি পাওনাও বলা যেতে পারে।’

ঢাকার রাজারবাগ পুলিশ লাইনে ‘ঢাকা অ্যাটাক’ ছবির শুটিংয়ে সৈয়দ হাসান ইমাম, লায়লা হাসান, আলমগীর ও আফজাল হোসেন। ছবি:খালেদ সরকার

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর চরিত্রে অভিনয় করা সৈয়দ হাসান ইমাম বলেন, ‘গঠনমূলক একটা চরিত্র। সময়োপযোগী একটা সিনেমা। একটা স্কুলে সন্ত্রাসী হামলা হয়, সেটার বিষয় নিয়ে প্রধানমন্ত্রী আমাকে ডেকে পাঠান। সেটা পরিদর্শনে যাই, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলাপ করে এসে একটা সংবাদ সম্মেলন করি। বাকি ব্যাপারগুলো সিনেমা মুক্তির পর প্রেক্ষাগৃহে যাওয়ার পর দেখতে পারবেন।’

‘ঢাকা অ্যাটাক’ ছবিতে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার চরিত্রে অভিনয় করেছেন আলমগীর ও আফজাল হোসেন। ছবিতে আরিফিন শুভ আছেন পুলিশের বোমা নিষ্ক্রিয়কারী বিভাগের প্রধান হিসেবে। মাহি অভিনয় করেছেন সাংবাদিক চরিত্রে। শতাব্দী ওয়াদুদও পুলিশ চরিত্রে অভিনয় করেছেন। এ বি এম সুমন আছেন সোয়াতের সক্রিয় সদস্য হিসেবে। এই ছবির একটি আইটেম গানে অংশ নিয়েছেন জন ও মিমো।

Comments

comments

Leave a Reply

Scroll To Top