নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারে আবারো আবেদন করবেন পরিচালক রনি

শামীম আহমেদ রনির ওপর বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতিসহ ১৩টি সংগঠনের নিষেধাজ্ঞা বহাল রাখা হয়েছে। রোববার বিকেলে এফডিসিতে পরিচালক সমিতির সভাকক্ষে বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়। এ নিয়ে রনি জানালেন, সদস্যপদ ফিরে পেতে আবারো আবেদন করবেন।


সম্প্রতি একটি অনলাইন পত্রিকার সাথে আলাপকালে তিনি বলেন, “আমি ১ মে সদস্যপদ ফেরত চেয়ে আবার আবেদন করি। উনারা তা গ্রহণ করলেন না। আমি আবারো আবেদন করব ২-৩দিনের মধ্যে। এরপরও কোন সিদ্ধান্ত না হলে আমি নির্মাণাধীন ‘রংবাজ’ ছেড়ে দিব। প্রযোজকের ক্ষতি করে তো লাভ নেই।”

তবে রনি জানান, কোন প্রকার মামলা-মোকাদ্দমায় যাবেন না তিনি। ২৯ এপ্রিল রনিকে পাঠানো পরিচালক সমিতির নোটিশে বলা হয়, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির কার্যনির্বাহী পরিষদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী শাকিব খান সম্পৃক্ত কোনো কাজ না করার জন্য পত্রের মাধ্যমে রনিকে বিশেষভাবে অনুরোধ করা হয়। কিন্তু রনি সিদ্ধান্তকে ন্যূনতম সম্মান না দেখিয়ে চলচ্চিত্র নির্মাণ কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। যা নিয়ম নীতির সুস্পষ্ট লংঘন।

এ ছাড়া সমিতি কর্তৃক ‘রংবাজ’ শিরোনামের সিনেমার যে সনদপত্র দেওয়া হয়েছে তাতে উল্লেখ রয়েছে, বিদেশি শিল্পী ব্যবহারের ক্ষেত্রে সরকারি নিয়মনীতি যেন অবশ্যই মেনে চলা হয়। কিন্তু সেই নিয়মনীতির বরখেলাপ করেছেন শামীম আহমেদ রনি।

উল্লেখিত দুটি নিয়ম ভঙ্গের কারণে রনি বাংলাদেশ পরিচালক সমিতির গঠনতন্ত্রের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছেন বলে মনে করছে পরিচালক সমিতি। এ জন্য পরিচালক সমিতির গঠনতন্ত্রের ৫ (ক) ধারা বলে তার সদস্যপদ বাতিল ঘোষণা করা হয়। পাশাপাশি সাত কার্যদিবসের মধ্যে রনির বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির পরিচয় পত্র ও বিএফডিসি’র গেট পাশ সমিতির কার্যালয়ে জমা দিতে বলা হয়।

এ ঘোষণায় চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট অন্য ১২টি সংগঠনের সম্মতি ছিল। একই ধরনের নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয় শাকিব খানের ক্ষেত্রেও। তবে তিনি ‘দুঃখ প্রকাশ’ করে নিষেধাজ্ঞা মুক্ত হন।

নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকায় হুমকির মুখে পড়ল ঈদুল ফিতরের জন্য নির্মিতব্য ‘রংবাজ’। সিনেমাটিতে অভিনয় করছেন শাকিব খান ও শবনম বুবলি। এর আগে রনি নির্মাণ করেছেন রানা পাগলা, বসগিরি ও ধ্যাততেরেকি নামের সিনেমা।

Comments

comments

Scroll To Top