‘পোস্ত’ মুক্তিতে ‘রাজনীতি’ পরিচালকের ক্ষোভ!

সাফটা চুক্তির আওতায় শুক্রবার (২২ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশে মুক্তি পেয়েছে কলকাতার ছবি ‘পোস্ত’। একই দিনে মুক্তি পেয়েছে দেশীয় প্রযোজনার ‘খাঁচা’। অতীতের মতো এবারও বাংলাদেশের ‘খাঁচা’র চেয়ে অনেক বেশি হলে মুক্তি পেয়েছে কলকাতার ‘পোস্ত’! যৌথ প্রযোজনা নিয়ে মাঠ গরম করা চলচ্চিত্র পরিবার এই ক্ষেত্রে রহস্যজনকভবে নীরব। আর তাই তাদের এই নিরবতা আরো একবার চলচ্চিত্র শিল্পের উন্নয়নে তাদের ভূমিকাকে করেছে প্রশ্নবিদ্ধ!

চলচ্চিত্র পরিবারের এই নীরবতা প্রসঙ্গে সাধারণ বাংলা সিনেমাপ্রেমীদের পাশাপাশি দীর্ঘ এক স্ট্যাটাসে ক্ষোভ ঝাড়লেন ‘রাজনীতি’ খ্যাত নির্মাতা বুলবুল বিশ্বাস। সাফটা চুক্তির মত সরকারী নিয়ম নিয়ে কোন পদক্ষেপ না থাকার প্রসঙ্গেও উঠে আসে তার এই স্ট্যাটাসে।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “চলচ্চিত্র পরিবারের আন্দোলন কই গেলো? যৌথ প্রযোজনা (মতান্তরে যৌথ প্রতারণা) চললে বাংলাদেশী চলচ্চিত্রের মানুষ না খেয়ে মরবে, তাই এর বিরুদ্ধে রাজপথে নামলাম। এখন আমার প্রশ্ন, পোস্ত কি আমাদের দোস্ত লাগে যে, এখান থেকে ব্যাবসা করে চলচ্চিত্র পরিবারকে বসিয়ে বসিয়ে খাওয়াবে। তাহলে চুপ কেন চলচ্চিত্র পরিবার। সাফটা চুক্তির বিপক্ষে কোন কথা কেউ বলছেন না? আগেও বলেননি, বলবেন না। জানি। কারণ সাফটা চুক্তি কোন জাজ/শাকিব খান/ব্যক্তি প্রতিষ্ঠান নয়। এটা সরকারী নিয়ম।”

এছাড়াও যৌথ প্রযোজনার বিরুদ্ধে আন্দোলনের সময় তথ্যমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবীর প্রসঙ্গে তুলে তিনি বলেন, “আচ্ছা, আমরা না তথ্যমন্ত্রী জনাব হাসানুল হক ইনু সাহেবের পদত্যাগ চেয়েছিলাম। সেই এজেন্ডা/দফার কি হল? আর তো শুনি না। আসলেই কি আন্দোলনের সুলিখিত কোন এজেন্ডা ছিল। চোখে পড়েনি। সরকার আমাদের প্রজেক্টর, আর নতুন যৌথ নীতিমালা প্রণয়ন করে দেবে আর আমরা সরে আসলাম আমাদের দাবী/এজেন্ডা থেকে। কবে সরকারী প্রজেক্টর হলে বসবে, সেই ভাবনায় বসে বসে আমি কি আঙ্গুল চুষবো? আর সরকার প্রজেক্টর দিলেই বা কি! ততদিনে বাংলাদেশ চলচ্চিত্রের নাম-গন্ধ থাকবে কি না সন্দেহ।”

চলচ্চিত্রের সাথে সম্পৃক্ত লোকদের বিরোধের কারনে প্রযোজকদের অস্বস্তির কথা ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, “ইতিমধ্যেই দেশীয় প্রযোজকরা সরে গেছেন। নতুন প্রযোজকের দেখা মেলা ভার। যদিও দেখা মেলে তাদের সরল বক্তব্য আপনারা নিজেদের ক্যাচাল মেটান, পরে না হয় চিন্তা করবো।”

তিনি আরো বলেন, “আর একটি কথা, সরকার তো চলচ্চিত্রকে ইন্ডাস্ট্রি হিসেবে ঘোষণা করেছিলেন এবং সহজ শর্তে ব্যাংক লোনের কথা বলেছিলেন। চলচ্চিত্র পরিবারের কেউ কি সেই লোন নিয়ে সিনেমা বানাতে পেরেছেন? আমি ২ কোটি টাকা লোন নিতে চাই,  সিনেমা বানাবো।”

উল্লেখ্য যে, গত রোজার ঈদে মুক্তি পায় বুলবুল বিশ্বাস পরিচালিত প্রথম ছবি ‘রাজনীতি’। শুরুতে যৌথ প্রযোজনার দুই ছবি ‘নবাব’ এবং ‘বস ২’ এর দাপটে কম সংখ্যক হল পেলেও পরবর্তিতে নতুন নতুন হলে প্রদর্শিত হয় সিনেমাটি। শাকিব খান, অপু বিশ্বাস এবং আনিসুল হক মিলন অভিনীত সিনেমাটি দর্শকদের কাছ থেকে ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়।

Comments

comments

Scroll To Top