ফিরে দেখাঃ ২০১৬ সালের ঢালিউডের আলোচিত ঘটনা (ষষ্ট পর্ব)

dhallywood-events-home

বছরজুড়ে নানা ঘটনায় সরগরম ছিল ঢাকার সিনে পাড়া। একের পর এক সিনেমার ব্যর্থতার পাশাপাশি ছিল কিছু সুখবর। এ বছরই মুক্তি পেয়েছে ‘আয়নাবাজি’, ‘শিকারি’র মতো তোলপাড় করা সিনেমা। ছিল ভারতীয় সিনেমা নিয়ে আন্দোলন, মুক্তি প্রতিক্ষীত ‘ডুব’ নিয়ে বিতর্ক। আরো ছিল নায়িকাদের প্রেম, বিয়ের কেচ্ছা। দেখে নিন ঢালিউডের ২০১৬ সালের আলোচিত কিছু ঘটনাঃ

আয়নাবাজির বাজিমাত : বছরের সবচেয়ে আলোচিত সিনেমা ‘আয়নাবাজি’ মুক্তি পায় ৩০ সেপ্টেম্বর। প্রথম সপ্তাহে ২২টি হল পেলেও পরের সপ্তাহগুলোতে বাড়তে থাকে। ডিসেম্বরের তৃতীয় সপ্তাহেও একাধিক হলে প্রদর্শিত হচ্ছে। বিদেশেও সমাদর পেয়েছে অমিতাভ রেজা চৌধুরীর ‘আয়নাবাজি’। ২০ অক্টোবর একটি মোবাইল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের অনলাইন টিভি থেকে ফাঁস হয়ে যায় ছবিটি। এ নিয়ে বিতর্কে পড়েন সিনেমাটির নির্মাতা ও প্রযোজক।

দ্বিতীয়বার যৌথ প্রযোজনায় শাকিব : যৌথ প্রযোজনার সিনেমা ‘সবার উপর তুমি’তে এক দশক আগে মুখ দেখিয়েছিলেন শাকিব খান। ২০১৬ সাল মুক্তি পায় দ্বিতীয় সিনেমা ‘শিকারি’। নতুন লুকে দেশি দর্শকের মন কেড়েছেন তিনি। তবে কলকাতায় ভালো চলেনি। দেশে সমালোচনায়ও পড়েছেন শাকিব। অভিযোগ ওঠে, যৌথ প্রযোজনা নিয়ে বিভিন্ন সময়ে যা বলেছেন তারই উল্টো করেছেন তিনি।

অপু আউট, বুবলি ইন :  অন্তরালে গিয়ে বছরের মাঝামাঝি থেকে আলোচনায় আছেন অপু বিশ্বাস। গুজব ওঠে ২০০৮ সালে শাকিবকে বিয়ে করেছেন তিনি। নভেম্বরে কলকাতায় দ্বিতীয় সন্তানের মা হয়েছেন। ফেসবুকে তেমন একটি ছবিও ভাইরাল হয়। অপুর অভাব পূরণেই যেন হাজির হয়েছেন শবনম বুবলি। কোরবানি ঈদে ‘বসগিরি’ ও ‘শুটার’-এর মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্রে অভিষেক হয় তার। এ নায়িকাও বিয়ে-সন্তানের গুজবের শিকার হন। তার পক্ষ নিয়ে সংবাদমাধ্যমে কথা বলেন শাকিব।

বৃহন্নলার পুরস্কার বাতিল : ২৫ ফেব্রুয়ারি ঘোষণা করা হয় জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার-২০১৪। শ্রেষ্ঠ সিনেমা, কাহিনী ও সংলাপ শাখায় পুরস্কার জেতে মুরাদ পারভেজের ‘বৃহন্নলা’। এরপরই শুরু হয় বিতর্ক। পশ্চিম বঙ্গের লেখক সৈয়দ মুস্তাফা সিরাজের গল্প চুরির বিষয়টি প্রমাণিত হওয়ায় বাতিল হয় পুরস্কার।

মাহির বিয়ে, মামলা :  ২৫ মে পারভেজ মাহমুদ অপুর সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন মাহি। এর পরপরই স্ত্রী দাবি করে অনলাইনে ছবি ছড়িয়ে দেয় মাহির বন্ধু শাওন। ২৭ মে রাতে তথ্য প্রযুক্তি আইনে একটি মামলা করেন মাহি। গ্রেফতার হন শাওন। পরে সমঝোতার মধ্য দিয়ে বিষয়টির সমাধান হয়।

পরী মনির বিয়ে বিতর্ক : ফ্রেব্রুয়ারিতে পরী মনির বিয়ের কাবিননামা ও স্বামীর সঙ্গে তোলা ছবি প্রকাশ হয় অনলাইনে। ফেরদৌস কবীর সৌরভ নামের এক ব্যক্তি পরীকে স্ত্রী বলে দাবি করেন। পরী মনির দাবি— উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে ছবিগুলো প্রকাশ করা হয়েছে। বিতর্কের পাশাপাশি ঈদুল ফিতরে মুক্তি পাওয়া ‘রক্ত’ দিয়ে প্রশংসিত হন তিনি।

উপমহাদেশীয় ভাষার চলচ্চিত্র প্রদর্শনে প্রতিবাদ : জুলাইয়ের শেষ দিকে মুক্তি পায় ভারতীয় চলচ্চিত্র ‘কেলোর কীর্তি’। প্রতিবাদে ২৮ জুলাই মাঠে নামেন চলচ্চিত্রকর্মীরা।

শঙ্খচিল বিতর্ক : সমালোচিত হয় ইমপ্রেস টেলিফিল্মের যৌথ প্রযোজনার ছবি ‘শঙ্খচিল’। অভিযোগ ওঠে— সীমান্তের দুই পাড়ের মানুষের মানবিকতার কথা বলা হলেও, চলচ্চিত্রটির কোথাও বাংলাদেশিদের হত্যা কিংবা নিহতদের পরিবারের যন্ত্রণার প্রতিফলন দেখা যায়নি। উল্টো ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর প্রতি সাফাই গাওয়া হয়। চলচ্চিত্রটি আঞ্চলিক ভাষা বিভাগে ভারতের জাতীয় পুরস্কার জেতে।

অনলাইনে অজ্ঞাতনামার সাফল্য : আগস্টে মুক্তি পেয়েও আলোচনা তুলতে পারেনি তৌকীর আহমেদের ‘অজ্ঞাতনামা’। ডিসেম্বরের মাঝামাঝিতে অনলাইনে ফাঁস হলে সিনেমাটি দারুণ প্রশংসা লাভ করে। এর জন্য দুর্বল মার্কেটিং ও পাবলিসিটিকে দায়ী করছেন বিশ্লেষকরা।

ডুব বিতর্ক : হুমায়ূন আহমেদের জীবনীতে নির্মিত হয়েছে মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ডুব। এমন খবরে অক্টোবরে শুরু হয় বিতর্ক। পাল্টাপাল্টি বক্তব্য দিয়ে মাঠ জমিয়ে রাখেন ফারুকী ও হুমায়ূনের দ্বিতীয় স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন।

Comments

comments

Leave a Reply

Scroll To Top