ফিরে দেখা ২০১৬ঃ বলিউডের আলোচিত যত চলচ্চিত্র

photo-1482822632

উপমহাদেশ কিংবা বিশ্ব চলচ্চিত্রে বলিউড অন্যতম প্রভাবশালী চলচ্চিত্রশিল্প। তাই ভারত ও ভারতের বাইরে বলিউডের ছবি নিয়ে দর্শকদের আগ্রহের কমতি নেই। প্রতিবছর দেড় শতাধিক ছবি মুক্তি পায় বলিউডে। এর ভেতর কিছু ছবি বক্স-অফিসে ভালো অবস্থান করে নেয়। আবার কিছু ছবি বক্স-অফিসে তেমন সুবিধা করতে না পারলেও আলোচনায় থাকে। এনটিভি অনলাইন পাঠকদের জন্য বলিউড বক্স-অফিস ওয়েবসাইটের তথ্যমতে চলতি বছর আলোচনায় থাকা এমন ১৬টি চলচ্চিত্রের বাজেট, কাহিনী এবং শুধু ভারতে আয়ের হিসাব তুলে ধরা হলো।

সুলতান

চলতি বছর বলিউডে সবচেয়ে ব্যবসাসফল ছবি হিসেবে বক্স-অফিসে জায়গা করে নেয় আলি আব্বাস জাফর পরিচালিত ‘সুলতান’। সালমান খান, আনুশকা শর্মা অভিনীত ৯০ কোটি বাজেটের ছবিটি আয় করে ৩০০ দশমিক ২২ কোটি রুপি।

‘সুলতান’ ছবিতে সালমান খান অভিনয় করেন একজন কুস্তিগিরের চরিত্রে। আর আনুশকা শর্মা অভিনয় করেন কুস্তি প্রশিক্ষকের মেয়ে ও নারী কুস্তিগির চরিত্রে। সে নিজ রাজ্যে চ্যাম্পিয়ন। ছবির কাহিনীতে দেখা যায়, সুলতান দিশাহীন প্রাণবন্ত যুবক। হঠাৎ করেই প্রেমে পড়ে যান আরফার। আরফা কুস্তি প্রশিক্ষকের মেয়ে। আরফার মন পেতে সুলতান কুস্তির জগতে পা রাখেন। একটা সময় কুস্তিকে ভালোবেসে ফেলেন। সেইসঙ্গে সবাইকে চমকে দিয়ে হন রাজ্য চ্যাম্পিয়ন। এরপর সুলতান ও আরফা নেমে পড়েন বিশ্বজয়ের যৌথ অভিযানে।

রুস্তম

বাস্তব ঘটনার ওপর নির্মিত হয় ‘রুস্তম’ চলচ্চিত্রটি। এটি পরিচালনা করেন টিনু সুরেশ দেশাই। ছবির বাজেট ছিল ৬৫ কোটি রুপি। আয় করে ১২৪ দশমিক ৫ কোটি রুপি। এটি সুপারহিট ছবি হিসেবে বক্স-অফিসে জায়গা করে নেয়। নামভূমিকায় অভিনয় করেন অক্ষয় কুমার। তাঁকে ছবিতে একজন নৌবাহিনীর কমান্ডার চরিত্রে দেখা যায়।

পেশায় নৌবাহিনীর কমান্ডার রুস্তম প্রচণ্ড দেশপ্রেমিক। প্রয়োজনে দেশের জন্য জীবন দিতে পারেন। স্ত্রী সিনথিয়াকে নিয়ে তার সুখের সংসার। একটা সময় তিনি জানতে পারেন, স্ত্রীর সঙ্গে নিজের খুব কাছের বন্ধু বিক্রম মাখিয়ার বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক চলছে। এমতাবস্থায় তিনি বন্ধুকে হত্যা করার সিদ্ধান্ত নেন। হত্যাও করেন। কিন্তু পালিয়ে না গিয়ে আত্মসমর্পণ করেন। হত্যা মামলার আসামি রুস্তমের পক্ষে ছিল ভারতের সাধারণ জনগণ। পরবর্তীকালে রুস্তম খালাস পেয়ে যান। তখন অনেক মানুষ কোর্টের বাইরে প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়ে উল্লাস করেন।

এয়ারলিফট

১৯৯০ সালে ইরাক-কুয়েত যুদ্ধে আটকেপড়া ভারতীয়দের উদ্ধারের কাহিনী নিয়ে নির্মিত ছবি পরিচালনা করেন রাজা কৃষ্ণ মেনন। চিত্রনাট্য করেছেন পরিচালক নিজেই। মাত্র ৩০ কোটি রুপি বাজেটের এই ছবি ঘরে তোলে ১২৩ দশমিক ৪৩ কোটি রুপি।

‘এয়ারলিফট’ ছবির কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন অক্ষয় কুমার ও নিমরত কৌর। ১৯৯০ সালে ইরাক যখন কুয়েতে আক্রমণ করে, তখন সেখানে আটকা পড়ে প্রায় এক লাখ ৭০ হাজার ভারতীয় নাগরিক। অক্ষয় কুমার কুয়েতি এক সফল ব্যবসায়ীর চরিত্রে অভিনয় করেন, যার স্ত্রীর ভূমিকার অভিনয় করেন নিমরত কৌর। ভারতীয়দের নিরাপদে দেশে পাঠাতে জীবনের ঝুঁকি নেয় অক্ষয় কুমার।

এম এস ধোনি : দি আনটোল্ড স্টোরি

ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মাহেন্দ্র সিং ধোনির জীবন কাহিনী নিয়ে নির্মিত ছবিটি মুক্তির পর সমগ্র ভারতজুড়ে বেশ আলোড়ন সৃষ্টি করে। দর্শকদের আগ্রহ ছবিটিকে হিট ছবিতে পরিণত করে। ১০৪ কোটি রুপি বাজেটের ছবিটি আয় করে ১২৭ দশমিক ৪ কোটি রুপি। ছবিতে ধোনির চরিত্রে অভিনয় করেন সুশান্ত সিং রাজপুত।

নিরাজ পান্ডে পরিচালিত ছবির কাহিনীতে ক্রিকেটার মাহেন্দ্র সিং ধোনির জীবনের উত্থান-পতনের গল্প তুলে ধরা হয়েছে।

হাউজফুল থ্রি

বলিউডের আলোচিত কমেডি ধাঁচের ছবি হাউজফুলের সিক্যুয়াল ‘হাউজফুল থ্রি’ মুক্তির পর বেশ ভালো অবস্থানে ছিল। প্রায় ৮৫ কোটি রুপি বাজেটের ছবিটি আয় করে ১০৮ কোটি রুপি। সাজিদ-ফরহাদ পরিচালকদ্বয় নির্মিত হাউজফুল থ্রিতে অভিনয় করেন অক্ষয় কুমার, অভিষেক বচ্চন, রিতেশ দেশমুখ, জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজসহ আরো অনেকে।

আয় দিল হায় মুশকিল

রণবীর কাপুর ও ঐশ্বরিয়া রায় অভিনীত ছবিটি পরিচালনা করেন করণ জোহর। এই জুটির এটি প্রথম ছবি হওয়ায় আলোচিত ছিল। তবে দর্শকদের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন বিরতির পর অভিনয়ে ফেরা সাবেক বিশ্ব সুন্দরী ঐশ্বরিয়া রায় বচ্চন। ছবিতে রণবীর কাপুর ও ঐশ্বরিয়া রায় বচ্চনের রসায়ন চমৎকার থাকলেও কিছু দৃশ্য নিয়ে সমালোচরা উঠেছিল। সেইসঙ্গে ঐশ্বরিয়ার শ্বশুরবাড়ি বচ্চন পরিবার নাখোশ হয়েছিল। এ ছাড়া ছবিতে রণবীরের বিপরীতে আনুশকা শর্মার অভিনয়ও প্রশংসিত হয়েছিল।

ছবির বাজেট ছিল ৯২ কোটি রুপি। ১২৫ দশমিক ২৫ কোটি রুপি ব্যবসা করে বক্স-অফিসে হিট ছবির জায়গা দখল করে নেয়।

ছবির গল্প তিনটি চরিত্রকে ঘিরে গড়ে উঠেছে। রণবীর কাপুর মাল্টিমিলিয়নেয়ার ব্যাচেলর। গান খুব ভালোবাসেন। লন্ডনে এক নাইট ক্লাবে দেখা হয় আনুশকার সঙ্গে। রণবীর রীতিমতো আনুশকার প্রেমে পড়ে গেলে আনুশকার অতীত বাধা হয়ে দাঁড়ায়। তাই বন্ধুত্বের বন্ধনে জড়ান দুজনে। প্রথম অর্ধেক রণবীর ও আনুশকা এগিয়ে নেওয়ার পর হাজির হন ঐশ্বরিয়া। এভাবে কাহিনী এগিয়ে যায়।

শিভায়

নকলের অভিযোগ মাথায় নিয়ে চলতি বছর মুক্তি পায় অজয় দেবগন অভিনীত ছবি ‘শিভায়’। হলিউডের সুপারহিট ছবি ‘টেকেন’ থেকে নেওয়া হয়েছে ছবির গল্প। এমন অভিযোগ ছিল ছবিটির প্রতি। তবে অভিযোগ থাকলেও বক্স-অফিসে বেশ ভালো অবস্থানে ছিল ‘শিভায়’। ছবিটি কেবল ভারতে আয় করে ৮৭ দশমিক ২৫ কোটি রুপি, যার বাজেট ছিল ৮৫ কোটি রুপি।

‘শিভায়’ ছবিতে অজয় দেবগন আধুনিক শিবের চরিত্রে অভিনয় করেন। নিজের মেয়ে অপহরণকে কেন্দ্র করে জ্বলে ওঠেন তিনি। একে একে সব অপরাধীকে ধ্বংস করার মিশনে নামেন অজয় দেবগন।

ফ্যান

শাহরুখ খান অভিনীত এবং আদিত্য চোপড়া পরিচালিত ‘ফ্যান’ ছবিটি মুক্তির আগে আলোচনায় থাকলেও মুক্তির পর সে আলোচনায় ভাটা পড়ে। ফলাফল বক্স-অফিসে ফ্লপ ছবি হিসেবে নাম লেখানো। ছবির বাজেট ছিল ১০৫ কোটি রুপি। এটি ঘরে তোলে ৮৩ দশমিক ২৫ কোটি রুপি।

‘ফ্যান’ ছবিতে শাহরুখ খান দ্বৈত চরিত্রে অভিনয় করেন। একটি চরিত্রের নাম গৌরব। সে সাধারণ একটি ছেলে। অন্য চরিত্রের নাম আরিয়ান খান্না। সুপারস্টার নায়ক। আরিয়ান খান্নার অনেক বড় ভক্ত গৌরব। গৌরব এলাকার বিভিন্ন অনুষ্ঠানে আরিয়ান খান্নাকে অনুকরণ করে বিনোদন দেয়। একসময় সে সিদ্ধান্ত নেয়, আরিয়ানের সঙ্গে দেখা করবে। খুব কষ্টে দেখা করে। কিন্তু আরিয়ান তার সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করে। গৌরব সিদ্ধান্ত নেয়, সে এই খারাপ ব্যবহারের প্রতিশোধ নেবে। শুরু হয় আরিয়ান ও গৌরবের লড়াই।

বাঘি

টাইগার শ্রফ ও শ্রদ্ধা কাপুর অভিনীত ‘বাঘি’ ছবিটি মুক্তির পর বক্স-অফিসে বেশ ভালো অবস্থানে ছিল। ছবিটি নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ৩৫ কোটি রুপি। আয় করে ৭৫ দশমিক ১৭ কোটি রুপি।

টাইগার শ্রফ ও শ্রদ্ধা কাপুর দুজনই মার্শাল আর্টে সমান পারদর্শী। দুজনের ভেতর প্রেম হয়। তবে তাঁদের ভেতর বাধা হয়ে দাঁড়ায় মার্শাল আর্ট গুরু। প্রেমের প্রতিহিংসা থেকে গুরুর বিরুদ্ধে বিদ্রোহ শুরু করে। এভাবে মূলত ছবির কাহিনী শাখা-প্রশাখা গজায়। ছবি দেখতে দেখতে একসময় পরিচিত কাহিনী মনে হলেও ভেতরে টুইস্টে ভরপুর। সাজিদ নাদিওয়ালা প্রযোজিত ছবিটি পরিচালনা করেন সাব্বির খান।

নিরজা

মুক্তির পর সমালোচকরা ছবিটি সম্পর্কে ইতিবাচক মতামত দেন। সেইসঙ্গে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করা সোনম কাপুরের অভিনয় প্রশংসিত হয়। আর সে কারণে ২৫ কোটি রুপির স্বল্প বাজেটের ছবিটি বক্স-অফিসে সুপারহিট ছবির তকমা পেয়ে যায়। সমগ্র ভারত থেকে ‘নিরজা’ আয় করে ৭১ দশমিক ২৬ কোটি রুপি।

সত্য ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত ছবিটি পরিচালনা করেছেন রাম মাধভানি। এতে নিরজা ভানোত নামের একজন বিমান বালা কীভাবে হাইজ্যাক হয়ে যাওয়া একটি বিমানের যাত্রীদের নিজের জীবন দিয়ে বাঁচিয়েছিলেন, সেটা দেখানো হয়েছে।

পিঙ্ক

একটি রক কনসার্টে পরিচয় হওয়ার পর রাতে খাবার খেতে একটি রিসোর্টে তিনজন পুরুষ ও তিনজন নারী যান। চলে সামান্য মদপান এবং একে অপরের ঘনিষ্ঠ হওয়ার চেষ্টা। এরপরই অঘটন।

অনিরুদ্ধ রায় চৌধুরীর প্রথম হিন্দি ছবি এটি। অভিনয় করেন অমিতাভ বচ্চন, তাপসী পান্নুসহ আরো অনেকে। ২৩ কোটি রুপি বাজেটের পিঙ্ক আয় করে ৬৩ দশমিক ২১ কোটি রুপি।

কাপুর অ্যান্ড সন্স

বহু বছর পর নিজেদের পৈতৃক বাড়িতে ফিরে আসে দুই ভাই রাহুল ও অর্জুন। পরিবারের নানা সমস্যা ও জটিলতা সমাধান করতে চাইলে পেরে ওঠে না। তারপরই তাদের জীবনে আসে একটি মেয়ে। এই মেয়েকে নিয়ে দুই ভাইয়ের মধ্যে দ্বন্দ্ব আরম্ভ হয়।

সাকুন বাত্রার পরিচালনায় ছবিতে অভিনয় করেন সিদ্ধার্থ মালহোত্রা, আলিয়া ভাট, ফাওয়াদ খান ও ঋষি কাপুর। ৩৫ কোটি বাজেটের ছবি কাপুর অ্যান্ড সন্স ঘরে তোলে ৬১ দশমিক ৩ কোটি রুপি। ছবির প্রযোজক করণ জোহর ও অপূর্ব মেহেতা।

ডিয়ার জিন্দেগি

গৌরী সিন্ধের ছবি ‘ডিয়ার জিন্দেগি’তে প্রথমবার জুটি বেঁধে অভিনয় করেন শাহরুখ খান ও আলিয়া ভাট। ২২ কোটির রুপির ছবিটি মুক্তির পর বক্স-অফিসে ভালো অবস্থান ধরে রাখে। ৬১ কোটি রুপি আয় করে হিটের তালিকায় নাম লেখায় ‘ডিয়ার জিন্দেগি’। যদিও ছবিটির বিরুদ্ধে কানাডিয়ান টেলিভিশনের একটি নাটকের কাহিনী নকল করার অভিযোগ ওঠে। পরবর্তী সময়ে সেটা অস্বীকার করেন পরিচালক।

উড়তা পাঞ্জাব

পাঞ্জাবের মাদক ব্যবহারের দৃশ্যপট নিয়ে নির্মাতা অভিষেক চৌবে নির্মাণ করেন ‘উড়তা পাঞ্জাব’। এতে অভিনয় করেন শহিদ কাপুর, আলিয়া ভাট প্রমুখ। ছবি নির্মাণে বাজেট ছিল ৪৮ কোটি রুপি। এটি ৫৮ দশমিক ২১ কোটি রুপি আয় করে বক্স-অফিসে অ্যাভারেজ ছবির জায়গা করে নেয়।

মহেঞ্জো দারো

প্রায় ১১৫ কোটি রুপি খরচে ‘মহেঞ্জো দারো’ ছবি নির্মিত হয়েছে সিন্ধু সভ্যতার প্রধান নগর মহেঞ্জো দারোকে নিয়ে। প্রাচীন পটভূমিকে কেন্দ্র করে নির্মিত চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছেন আশুতোষ গোয়রিকর। ছবিটিতে হৃতিক রোশনের বিপরীতে অভিনয় করেন নবাগতা পূজা হেজ। মুক্তির পর আলোচিত হলেও বক্স-অফিসে সুবিধা করতে পারেনি। এতে বিপর্যয়ের মুখে পড়ে ছবিটি। আয় করে মাত্র ৫৬ দশমিক ১১ কোটি রুপি।

দঙ্গল

বছরের শেষভাগে এসে মুক্তি পায় আমির খান অভিনীত ছবি ‘দঙ্গল’। মহাবীর ফোগাতের জীবনী নিয়ে নির্মিত ছবিটিতে আমির খান অভিনয় করেন একজন কুস্তিগিরের চরিত্রে। ২৩ ডিসেম্বর মুক্তি পাওয়া ১২৫ কোটি বাজেটের এই ছবি তিন দিন পেরোতেই ১০০ কোটি ক্লাবের সদস্য হয়ে গেছে। সমালোচকদের মতে, অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে দেবে ‘দঙ্গল’। আবার অনেকে মনে করছেন, সালমান খানের ‘সুলতান’ ছবিকে টেক্কা দিয়ে বছরের সবচেয়ে বেশি আয়ের ছবি হিসেবে জায়গা করে নেবে।

এই হলো ২০১৬ সালে বলিউডে আলোচিত ১৬টি চলচ্চিত্র। এর বাইরেও বেশ কিছু চলচ্চিত্রের আলোচনা-সামলোচনায় সারা বছর সরব ছিল বলিউড। তবে আলোচিত ছবিগুলোর দিকে খেয়াল করলে দেখা যাবে বায়োপিক তথা জীবনীভিত্তিক চলচ্চিত্র নির্মাণের জোয়ার বয়ে যায় বছরটিতে। দর্শকদের চাহিদাও ছিল প্রচুর। জনপ্রিয়তা পেয়েছে আকাশচুম্বী। পাশাপাশি রোমান্টিক লাভ স্টোরি কিংবা থ্রিলার ছবি মোটামুটি ব্যবসা করেছে। আসছে নতুন বছর হয়তো চলতি বছরের ধারাবাহিকতা বজার রাখবে বলিউড। নতুন বছরে মুক্তি পেতে যাওয়া ছবির আগাম খবর এমনই ধারণা দেয়।

Comments

comments

Leave a Reply

Scroll To Top