শাকিব খানকে মাইনাস করার চিন্তাঃ কোন পথে ঢালিউড?

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেতা শাকিব খান এ দেশের চলচ্চিত্রের গর্ব। তাকে নিয়ে ষড়যন্ত্রের সমাপ্তি এখনই হওয়া দরকার। আর শাকিবকে নিজের বিবেক-বুদ্ধি দিয়ে আপন-পর চিনতে হবে।

ঢালিউডের শীর্ষ নায়ক শাকিব খানকে চলচ্চিত্র জগৎ থেকে কেউ যদি মাইনাস করার চিন্তা করে তাহলে সেটি হবে এক আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত। শাকিব চলে গেলে চলচ্চিত্র শিল্পকে গুডবাই জানাতে হবে। এভাবেই নিজের উদ্বেগের কথা জানালেন চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির সভাপতি এবং মধুমিতা সিনেমা হল ও মধুমিতা মুভিজের কর্ণধার ইফতেখার নওশাদ। তার কথায় শাকিবের পারিবারিক বা ব্যক্তিগত ঘটনাকে পুঁজি করে একটি মহল তাকে শেষ করে দেওয়ার নির্লজ্জ চক্রান্তে মেতে উঠেছে। বিগত কয়েক দশক ধরে একমাত্র শাকিবের ছবির ওপর নির্ভর করেই দেশের সিনেমা হলগুলো টিকে আছে।

অভিনেতা আলমগীরের কথায়— ‘শাকিবের ক্যারিয়ার এখন চ্যালেঞ্জের মুখে। এ অবস্থায় তাকে মাথা ঠাণ্ডা রেখে বুঝে-শুনে এগুতে হবে। মিডিয়ার সবাইকে সঙ্গে নিয়ে কাজ করতে হবে। তা না হলে আরও কঠিন অবস্থায় পড়তে হবে তাকে। ’

১০ এপ্রিল শাকিবের সন্তানসহ তার স্ত্রী অপু বিশ্বাসের আত্মপ্রকাশের পর থেকে এ ঘটনাকে পুঁজি করে একাধিক ঘটনার জন্ম দেওয়া হয়েছে। আর কৌশলে সবই করেছে শাকিবের প্রতিপক্ষের লোকজন, যারা এতদিন তার আকাশ ছোঁয়া জনপ্রিয়তার কারণে ঈর্ষান্বিত হয়ে তাকে ধ্বংসের নীল নকশায় মেতেছিল।

সর্বশেষ ৫ মে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনের দিন রাতে এফডিসিতে তার ওপর ন্যক্কারজনক হামলার ঘটনা আবার প্রমাণ করেছে শাকিবের প্রতি তাদের হিংসার পরিমাপ কতখানি। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেতা শাকিব খান এ দেশের চলচ্চিত্রের গর্ব। তাকে নিয়ে ষড়যন্ত্রের সমাপ্তি এখনই হওয়া দরকার। আর শাকিবকে নিজের বিবেক-বুদ্ধি দিয়ে আপন-পর চিনে কাজে মনোনিবেশ করতে হবে।

অপু বিশ্বাস বলেন, শাকিব আমার স্বামী। তার বিরুদ্ধে যারা নির্লজ্জ ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে তাদের প্রতি ধিক্কার জানাই। তাদের বিচার দাবি করছি। আর একজন সহশিল্পী হিসেবে বলব, আজ যারা শাকিবের গায়ে হাত তোলার সাহস দেখিয়েছে তাদের এখনই প্রতিরোধ করা না গেলে ভবিষ্যতে যে কোনো শিল্পীর ওপর আঘাত হানতে ভয় পাবে না চক্রান্তকারীরা।

জাজ মাল্টিমিডিয়ার চেয়ারম্যান আবদুল আজিজ বলেন, শাকিব খান চলচ্চিত্র শিল্পকে এখনো বাঁচিয়ে রেখেছেন। তার ওপর হামলা কোনোভাবে মেনে নেওয়া যায় না। তাকে রক্ষায় আমরা চলচ্চিত্রকাররা প্রয়োজনে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সব ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করব।

প্রযোজক মো. হোসেন ও কামাল কিবরিয়া লিপু বলেন, এফডিসি কর্তৃপক্ষের কাছে আমাদের প্রশ্ন—এফডিসির মতো কেপিআইভুক্ত এলাকায় শাকিব খানের মতো একজন জাতীয় সম্পদের ওপর অস্ত্র নিয়ে হামলা কীভাবে ঘটল এবং এর বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা নেওয়া হলো না?

Comments

comments

Scroll To Top