জীবনে ঝড় এলেও আমি সেটা ওভারকাম করেছিঃ শাকিব খান

কিছু দিন আগে মুক্তি পেয়েছে শাকিব খান ও শুভশ্রীর ‘নবাব’। কিন্তু ছবিটির মুক্তি নিয়ে বাংলাদেশে প্রচুর সমস্যা হয়েছিল বলে দাবি করলেন শাকিব। দিন কয়েক আগে সমস্যা তৈরি হয়েছিল তাঁর ব্যক্তিগত জীবন নিয়েও। তবে এখন সব ঝড় থেমেছে। সব কিছু নিয়েই সম্প্রতি তিনি কথা বলেন কলকাতার আনন্দবাজার পত্রিকার সাথে। আনন্দবাজারের সৌজন্যে সাক্ষাৎকারটি ফিল্মীমাইক পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো-

কনগ্র্যাচুলেশন…এই নিয়ে তৃতীয় বার জাতীয় পুরস্কার পেলেন। কেমন লাগছে?

শাকিব: অনেক ধন্যবাদ। জাতীয় পুরস্কার পাওয়ার পরের অভিজ্ঞতাটা বলে বোঝানো যাবে না। তবে আগের দু’বারের তুলনায় এ বারের পুরস্কার এই ক্রাইসিসের সময় আমাকে অনেক বেশি উত্সাহ দিয়েছে।

কীসের ক্রাইসিস?

শাকিব: আসলে ‘নবাব’ বাংলাদেশে রিলিজের আগে কিছু সমস্যা হয়েছিল। ‘বস ২’ নিয়েও সমস্যা ছিল। দেখুন, ভারত-বাংলাদেশ যৌথ প্রযোজনা তো বাংলা ইন্ডাস্ট্রির জন্যই ভাল। দেব বা জিতের ছবি বাংলাদেশে রিলিজ হলে যেমন আমার কোনও অসুবিধে নেই। তেমন আমি নিশ্চিত আমার ছবিও এখানে মুক্তি পেলে ওদের কোনও আপত্তি থাকবে না, বরং ভাল লাগবে। গত ইদে ‘নবাব’ বাংলাদেশে মুক্তি পেয়েছে। গত ১২ বছরে সেরা ব্যবসা করেছে।

আর কোনও ক্রাইসিস?

শাকিব: না। বাংলাদেশে ‘নবাব’-এর রিলিজ নিয়েই সমস্যা চলছিল।

কিন্তু কয়েক দিন আগেই আপনার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে খুব চর্চা হয়েছে। হঠাত্ করেই আপনার ছেলেকে প্রকাশ্যে নিয়ে আসেন আপনার স্ত্রী নায়িকা অপু। সেটা ক্রাইসিস নয়?

শাকিব: দেখুন, আমার একটা সম্মানের জায়গা তো আছে। দুই বাংলার মানুষের কাছে আমি কৃতজ্ঞ যে যতই ঝড়ঝাপ্টা আসুক তাঁরা আমাকে ভালবেসেছেন। জীবনে ঝড় এলেও আমি সেটা ওভারকাম করেছি।

হঠাত্ করেই আপনার ছেলে আব্রাহাম খান জয়কে কেন প্রকাশ্যে নিয়ে এলেন অপু?

শাকিব: অপু মিসগাইডেড হয়েছিল। ভুল বোঝাবুঝির ব্যাপার ছিল। আসলে আমি যে ভাবে ছেলেকে সকলের সামনে ইন্ট্রোডিউস করতে চেয়েছিলাম সে ভাবে হয়নি। তবে আমার ছেলে কিন্তু প্রকাশ্যে আসার পরই সুপারস্টার হয়ে গিয়েছে (হাসি)।

আপনার সঙ্গে অপুর সম্পর্ক এখন কেমন?

শাকিব: ঠিক আছে।

অপু-শাকিবের জুটি কি শেষ হয়ে গেল? বড়পর্দায় আর তাঁদের দেখবেন না দর্শক?

শাকিব: বিয়ের পর কোনও কাপলকে অনস্ক্রিন হিরো-হিরোইন হিসেবে আর মানুষ দেখতে চাইবেন না বলেই আমার মনে হয়। হাজব্যান্ড-ওয়াইফের সিনেমা কে দেখবে রে ভাই? সে কারণেই আর একসঙ্গে ছবিতে রাজি হইনি। কিন্তু বাংলাদেশের পরিচালক-প্রযোজকদের আগ্রহ দেখে আমি অবাক হয়ে যাচ্ছি। তাঁরা অপুর সঙ্গে ছবি করার জন্য আমাকে তিন-চার গুণ বেশি রেমুনারেশন দিতে চাইছেন!

আপনার ছেলেকে অপু প্রকাশ্যে নিয়ে আসার পর নায়িকা বুবলি ফেসবুকে বিভিন্ন মন্তব্য করেছিলেন। শোনা গিয়েছিল, তিনি এমনও বলেছেন যে, আপনার আর বুবলির সাকসেসফুল কেমিস্ট্রি মেনে নিতে না পেরেই অপু ওই ঘটনা ঘটিয়েছিলেন। এ সব কি সত্যি?

শাকিব: দেখুন এখন এটা সকলের কাছে পরিষ্কার। বুবলি আমার ভাল বন্ধু। ওর সঙ্গে আমার কেমিস্ট্রি সাকসেসফুল। অপুও সফল নায়িকা। ফলে ওর জায়গা অন্য কেউ নিক সেটা অপু চাইবে না। কোনও নায়িকাই তা চান না। আর বুবলির সঙ্গে আমি বসে চা খেলেও সেটা রং চড়িয়ে বলা হয়। এটা অবশ্য সব ইন্ডাস্ট্রিতেই হয়ে থাকে।

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিতে কি আপনার কোনও শত্রু রয়েছে? ওখানেও তো সমস্যা হয়েছিল?

শাকিব: শত্রু, মিত্র- ব্যাপারটা এ ভাবে বলতে চাই না। ওখানে কেউ আমার বড়ভাই, কেউ ছোটভাই। একটা কথা বলতে পারি, আমাদের মাননীয়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে বলেছেন, যে উপরের দিকে উঠে যায় তার ওপর ঝড়ঝাপ্টা আসবেই। তুমি মন খারাপ কোরো না। তোমাকে আরও বড় কাজ করতে হবে। এর পরে তো আর কোনও কথা হতে পারে না। এর থেকে বেশি কিছু বলব না।

‘নবাব’ তো ভারতেও মুক্তি পেল। কেমন ফিডব্যাক পাচ্ছেন?

শাকিব: আমি দর্শকদের কাছে কৃতজ্ঞ। তাঁরা আমাকে ভালবাসা দিয়েছেন। কর্মাশিয়াল হলেও ‘নবাব’ একটু অন্য ধরনের ছবি। বাস্তবের সঙ্গে মিল রয়েছে। শুভশ্রী আমার বন্ধু। ওর সঙ্গে এটাই প্রথম কাজ। কিন্তু, শুটিংয়ের সময় তা এক বারও মনে হয়নি।

আপনি স্বপ্ন দেখেন?

শাকিব: অবশ্যই। বাংলা ইন্ডাস্ট্রিকে নিয়ে স্বপ্ন দেখি। দুই বাংলা যদি সিনেমার দিক থেকে এক হয়ে যায় তা হলে বাংলা ইন্ডাস্ট্রি অনেক সমৃদ্ধ হবে। অপোজিশন থাকবেই। কিছু মানুষ মন্দ কথা বলবেই। তার জন্য তো বৃহত্তর স্বার্থ থেমে থাকতে পারে না।

Comments

comments

Scroll To Top